24 October, 2008

বৈয়াম-বন্দী সময়


অনেকদিন লেখালেখি হচ্ছে না। না গল্প, না ডায়েরী। অলস মানুষের মতো গান শুনছি সকাল রাত। একেবারে পৌণপুঁনিক সময়ে আঁটকে গেছি।

০২.
ব্যাপারটা প্রতিদিন ঘটে, সকালে এলার্ম দেয় ঘড়ি। আলগোছে বন্ধ করি। বাইরে অন্ধকার, ভাবি - আরেকটু বেলা হোক। শেষে বাস ট্রেন মিস করে ক্লাসে লেট।

০৩.
কানাডা আসলাম আজ পঞ্চাশ দিন হয়ে গেলো। মনে হচ্ছে কতো দ্রুত যাচ্ছে দিন। নিঃশ্বাস ফেলার সময় পাচ্ছি না। ডায়েরী ভর্তি এসাইমেন্টের লিস্ট। মাথার ভেতর গিজগিজ। নেই বুক পকেটে জোনাকী পোকা।

০৪.
পরশু প্রথম তুষার পড়লো। চিনির মতো মিহিদানা। মন্দ না।

০৫.
মংগলবারে আলবিয়ন এভিনিউ থেকে বাসে উঠলো একটা ছেলে, চেহারা চেনা চেনা। আমাকেও চিনে নিলো। কায়সার; ৮ বছর পরে দেখা। শেষে বললো, 'দেখো উইন্টার আসলে কেমন লাগে...'

০৬.
এম পি থ্রি প্লেয়ার নষ্ট। কানের ভেতর গুঁজে দেয়ার কিছু নেই। বালাম-অনিলা-সুমন-তপু-সিমিন'দের গান শুনি ইদানিং। বই পড়ার সময় পাচ্ছি না।

০৭.
অবশেষে ফেইসবুকেও এডিক্টেড হলাম।

০৮.
বৃহষ্পতিবারে ক্লান্তি জড়িয়ে আসে। শনি-রবিবার যথেষ্ঠ না। ডিসেম্বর আর কতো দূরে?

০৯.
এশিয়ার দূরে যাওয়ার কারণে প্রিয় কিছু মানুষকে এখন অনলাইনে পাই না।
সময়ে দূরত্বে এইভাবে মানুষ আড়াল হয়?

১০.
...
কেটে গেছে কালিদাসের কাল।

.
.
.

1 মন্তব্য::

সৌরভ 24 October, 2008  

ভালো নেই। ভালো থাকবার উপায় নেই। যন্ত্র হয়ে যাচ্ছি। তাই কোথাও থাকতে পারি না।

  © Blogger templates The Professional Template by Ourblogtemplates.com 2008

Back to TOP