07 June, 2007

ব্লগ জীবনের ইতিউতি


ব্লগিং জিনিসটা বুঝতে আমার অনেক সময় লেগেছে। কীভাবে খুলে, কীভাবে লিখে - চেষ্টা করতে করতে অনেক সময় পার। নিজের একটা ব্লগ খুললাম, সম্ভবত: ব্লগস্পিরিটে। ইংরেজীতে লিখলাম - বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে। পরিচিত সবাইকে মেইল করে জানালাম একটা লেখা আছে, পড়ে দেখো। ২/১জন কমেন্ট করলো। কিন্তু আমার ভালো লাগলো না। ইন্টারনেটে বসে কার এমন আগ্রহ আছে - বড় বড় লেখায় ভাবের কথা পড়বে? একদিন রাগ করে দিলাম - 'ডিলিট দিজ ব্লগ'।
আরো অনেকদিন পরে - জানলাম সামহয়্যারইন নামে একটা ব্লগ আছে। বাংলা লেখার অপশন দেখে রেজিস্ট্রেশন করে ফেললাম। লিখে ফেললাম একটা লেখা। তখন ৯৪টা পোস্ট নিয়ে সর্বোচ্চ ব্লগারের তালিকায় শেষ জন ছিল। ভাবলাম রেগুলার লিখলে আমিও উঠে যাবো এ তালিকায়!
আজব ব্যাপার! লিখতে পারি না। পড়তেই দিন শেষ! চমৎকার চমৎকার সব লেখা। খুঁজে পেলাম আগে পড়েছি এমন কয়েকজনের নাম, লেখা। আমি তখন মাঝে মাঝে টুকটাক ডায়েরীর মতো করে লেখা লিখি। কী আশ্চর্য, কয়েকজন দেখলাম ওগুলো পড়েও কমেন্ট করে! প্রথম পাতায় না দেয়ার পরও মানুষ কীভাবে জানে আমি নতুন পোস্ট দিয়েছি! বোধ হয় ২/৩ সপ্তাহ পর দেখলাম সাম্প্রতিক মন্তব্য বলে একটা কলামও আছে। ডায়েরীর মতো করে লেখা ১৫/২০টা পোস্ট মুছে দিলাম। নিজের ব্যর্থ চেষ্টা গদ্য গল্প লেখা আবার শুরু করলাম। সবাই দেখি প্রশংসা করে, কেউ লেখনীর সমালোচনা করে না! বুঝলাম - এপ্রিসিয়েশনের একটি ব্যাপার আছে। আমিও অন্যদের পোস্ট পড়া শুরু করলাম। অন্তত: ২০জন ব্লগার পেলাম যাদের লেখা পড়ে দিন পার করা যায়। গুগল সরিয়ে আমার কম্পিউটারের হোমপেজ করলাম সামহয়্যারইনব্লগ। ছুটির দিনেও সাইবারে যাই ২০/৩০ মিনিটের জন্য, কে কী লিখলো তা পড়ার জন্য। বুঝলাম ব্লগিং এক নেশা। এই প্রথম বোধ হয় নিজের আত্মকেন্দ্রিকতা থেকে বেরিয়ে মানুষের সাথে মিশার চেষ্টা করলাম।
আমার পত্রিকা পড়ার অভ্যাস কমে গিয়েছিল এ ব্লগের কারণে। বন্ধুদের সাথে জিমেইল চ্যাটে ধুমধাম করে বিভিন্ন পোস্টের লিংক পাঠাই, ভাবিনা ওরা বিরক্ত হলো কিনা। রকিব কিংবা মনজুর যখন এখানে বেড়াতে এলো তখন কলেজ-ভার্সিটির দিনগুলোর বদলে আমি কেবল ব্লগের গপ্প করি। বুঝি এক নেশায় আক্রান্ত আমি। মুক্তির উপায় খুঁজিনি। অনেক প্রাপ্তি ঐ ব্লগ আড্ডায়। এরপরও কথা থাকে। সবকিছুর বোধ হয় এক রকম সমাপ্তি থাকে। কেউ কেউ বলেন - স্যাচুরেশন পয়েন্ট। সাথে ক্যাটালিস্ট হিসাবে আসলো তুমুল ঝড়। ব্লগ কর্তৃপক্ষের নীতির সাথে নিজেকে মেলাতে পারছিলাম না। প্রতিদিন সকালে ব্লগ খুলে কীটপতঙ্গ দেখতে ইচ্ছে করতো না। তারপর ৪জুন ভাবলাম - যথেষ্ঠ হয়েছে। আর না, নতুন আর কোনো লেখা ওখানে দিবো না। খুব দরকার না হলে কমেন্টও না।
ফিরে এলাম নিজের ম্যাচবক্সে।
এখন থেকে এখানে নিয়মিতভাবে কথা হবে, অল্পকথা - গল্পকথা।

1 মন্তব্য::

ali mahmed,  07 June, 2007  

ফিরে এলাম নিজের ম্যাচ···
আমার কখনও কখনও বড় অসহায় লাগে- নিজের সীমাবদ্ধতা নিয়ে।

  © Blogger templates The Professional Template by Ourblogtemplates.com 2008

Back to TOP