06 June, 2007

নির্বাসনের নীল নীড়


ইদানিং অনেক কিছু ভালো না লাগার প্রলেপ পাচ্ছে।
খুব অদ্ভুত এক সময়।
সেদিন শনিবার।
ছুটির দিন।
আমি যে লজে থাকি তার নিচে দাড়িয়ে দেখি অদ্ভুত ফুল ফুটে আছে সামনের গাছে। কী ফুল? কী গাছ? কৃষ্ণচূড়া গাছের মতো বড় গাছ। ফুলের রঙ গোলাপী, না গোলাপী না, ঠিক বেগুনীও না। হয়তো গোলাপী বেগুনীর কাছাকাছি কিছু একটা হবে। ধ্যুত, রঙ চেনা আর হলো কোথায়! প্রজেক্ট প্রেজেন্টেশনে আমার সেন্স অব কালার দেখে সবাই হাসাহাসি করতো। পার হয়ে গেলো দিনগুলো।
ক'দিন পরে সন্ধ্যায় খুব আগ্রহ নিয়ে যখন তাকালাম তখন দেখি ফুল আর নেই, ডালপালা নেই।
বস্ত্রহীন শরীরে নি:স্ব গাছ। মনটা খুব খারাপ হয়ে গেলো।
সে সন্ধ্যাটা অন্য রকম হতে পারতো।
আইপডে শাহানা বাজপেয়ী সুরের জাদুতে মাতাতে পারতো।
কিছুই হলো না।
লিটল ইন্ডিয়ায় সবজি-ভাত খেয়ে বাসায় ফিরে ঘুমিয়ে পড়লাম।
হাসি পায়, এটাও বাসা! ছোট্ট এক খুপড়ি জীবনের ধরা-বাঁধা জীবন।
নিয়মিত বাবুদের কেরাণী ঘরে হাজিরা।
প্রতিদিন এক একটা অভিনয়ের দিন। কেতাবী হাসি।
আর কান্না? কিসের জন্য কান্না?
শাদা বালিশে ছোপছোপ কান্নার দাগের সময় এখন এক অতিক্রান্ত বিলাসিতা।
চারপাশে যখন হুটহাট দরজা বন্ধের শব্দ তখন পলায়নপর আমার গন্তব্য কোথায়!
কোথাও যাওয়া হয় না। কিচ্ছু হয় না।

এসব করেই কেটে গেলো আজ ৬ জুন, তোমাকেই ভেবে ভেবে।

4 মন্তব্য::

Sadiq Alam 07 June, 2007  

thanks for the linking shimul. just noticed that from technoarti.

just wanted to say that i so dearly loved that picture of bangladesh on ur sidebard. after long long time i have seen such a pure image.

it reminds such peace and love for our beloved country.

thanks for bringing that feelings.

be with happiness.

ali mahmed,  07 June, 2007  

আপনার লেখালেখির হাত নিয়ে নতুন করে আর বলি না। টমেটোর মতো লাল হয়ে যাবেন!

আনোয়ার সাদাত শিমুল 10 June, 2007  

সাদিক ভাই: ধন্যবাদ।

শুভ ভাই: কয়দিন আগে সামহয়্যারে এক ব্লগার অন্য ব্লগারের পোস্টে গিয়ে বললো - 'শিমুলের ঐসব ফাস্টফুড লেখা লিখে ব্লগ ভাসানোর মতো অনেকেই এখানে আছে'। কথাটা আমার পছন্দ হইছে। ফাস্টফুডের বার্গার, স্যান্ডউইচে টমেটোও লাগে মনে হয়! হা হা হা।

  © Blogger templates The Professional Template by Ourblogtemplates.com 2008

Back to TOP