28 March, 2007

জন্মযুদ্ধ

অকাল প্রয়াত কবি রুদ্র মুহম্মদ শহীদুল্লাহ আকাশের ঠিকানায় চিঠি লেখার আহবান জানানোর প্রায় সমসাময়িক আমাদের আকাশ চিঠি চর্চা। এরি মাঝে আকাশের ঠিকানায় জায়গা করে নিয়েছে বেশ কিছু বাংলা ওয়েবসাইট। জন্মযুদ্ধ তারই একটি। মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত করার ইঁদুর দৌড়ে দ্বিধান্বিত তরুণ সমাজের সামনে জন্মযুদ্ধ এক প্রামানিক আকাশ দলিল। সত্যকে ছাইগাদার মধ্য থেকে ফিনিক্স পাখীর মত ওড়ানোর প্রত্যয়ে জন্মযুদ্ধ এক অন্যরকম প্রচেষ্ঠা।

স্বাধীনতা দিবসে "জন্মযুদ্ধ" নিয়ে লিখেছেন আনোয়ার সাদাত শিমুল-

বাংলাদেশ ১৯৭১। পৃথিবীর বুকে জন্ম নেয় একটি সবুজ শ্যামল রাষ্ট্র সত্ত্বা। এ জন্মের পেছনে আছে শোষণ-বঞ্চণা আর সংগ্রামের ইতিহাস। তিরিশ ল্ক্ষ শহীদের আত্মত্যাগে গৌরবোজ্জ্বল বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস প্রেরণা দেয় অর্থনৈতিক-সামাজিক ও রাজনৈতিক মুক্তির পাশাপাশি একটি সেক্যুলার রাষ্ট্র ব্যবস্থার। কিন্তু স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ের পটপরিবর্তনে বদলে গেছে অনেক কিছু। একাত্তরের পরাজিত পাকিস্তানী হানাদার ও তাদের দোসর বাহিনীর রেখে যাওয়া কীটগুলো ক্রমাগত পরিণত হয় দানবে। পাল্টায় ইতিহাসের পাতা। বদলে যায় সংগ্রামের ইতিহাস।

৩৫ বছর পেরিয়ে ক্রমাগত ইতিহাস বিকৃতি, রাজনৈতিক প্রাধান্য আর ক্ষমতার চেয়ারের জন্য মুক্তিযুদ্ধের ব্যক্তিকরণের অস্থির সময়ে - "আমরা একাত্তরের কথা বলতে এসেছি" প্রত্যয় নিয়ে ডিসেম্বর ২০০৬ থেকে যাত্রা শুরু করেছে ওয়েবসাইট "জন্মযুদ্ধ"।

প্রচলিত ওয়েবসাইটগুলো থেকে বেশ ভিন্নতা চোখে পড়ে প্রথম নজরেই। বাম পাশের সূচীমালা দেখেই ধারণা করা যায় - অনলাইন পাতায় ধারণের মাধ্যমের দেশ ও দেশের সীমানা পেরিয়ে অনাগত প্রজন্মের কাছে মুক্তিযুদ্ধের বিশাল ক্যানভাসকে পৌঁছে দেয়ার সুতীব্র বাসনা রয়েছে সংশ্লিষ্টদের।

মুক্তিযুদ্ধের দিনলিপি, ছবি, তথ্যচিত্র, গান, বই, সাহিত্য, দলিল, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক লেখা, একাত্তরের ঘাতক-দালাল বিভাগসহ পরিব্রাউজকারীদের মতামত জানানোর সুযোগ থাকছে 'জন্মযুদ্ধ' সাইটে।

আপাতত: সাইটের শরীর কাঠামো নির্মাণ হয়ে গেছে, বাকী আছে সমৃদ্ধকরণ ধাপ। সংশ্লিষ্টদের পরিকল্পনা থেকে আশা করা যায় - প্রতিদিন নতুন নতুন বিষয় যোগ হবে জন্মযুদ্ধের সেকশনগুলোয়। নির্মিত কাঠামোর অবয়ব দেখে নি:দ্বিধায় আশা করা যায় - এ কেবল যাত্রার শুরু। আগামী দিনগুলোয় মুক্তিযুদ্ধের প্রামাণিক দলিলের এক অনন্য সাধারণ উঠোন হয়ে থাকবে, যে উঠোনে ক্লিক করে আমরা পাবো - আমাদের শেকড়ের ইতিহাস, আমাদের নিত্য-প্রেরণা, আমাদের আগামীর জয়যাত্রা। প্রচলিত সাইটগুলো যেখানে দায়সারা ভাবে মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে বিভাগ রেখে তৃপ্তির ঢেকুর তুলে কিংবা মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষ শক্তির ছদ্মাবেশী ভাড়াটে গবেষকদের এসাইনমেন্ট রাইট-আপ দিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ায়, তার বিপরীতে 'জন্মযুদ্ধ' হবে শুদ্ধতম ইতিহাস চর্চা ও সংরক্ষণের শক্তিশালী ক্ষেত্র; এমনটাই আমাদের প্রত্যাশা।

'জন্মযুদ্ধ' হোক একটি চলমান প্রক্রিয়া।

এ সাইটের আলোয় আগামী প্রজন্ম খুঁজে পাক প্রকৃত ইতিহাসের প্রত্যাশিত স্পটলাইট।
আলোকিত হোক গৌরবের ইতিহাস গাঁথা।

সাইটের পেছনের মানুষদের ভাষায় 'জন্মযুদ্ধ' উদ্যোগটি নেয়া হয়েছে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে দায়বোধ থেকে। ইতিহাসকে প্রজন্মান্তরে পৌঁছে দেয়ার এ দৃঢ়তা নি:সন্দেহে এক সফল আলোকিত সূচনার ইঙ্গিত বহন করে।

জন্মযুদ্ধের চেতনা বুকে নিয়ে অনাগত প্রজন্ম আসুক একাত্তরের দীক্ষায়।
ঘুরে দেখুন www.jonmojuddho.org

(হাজারদুয়ারী-তে প্রকাশিত)

0 মন্তব্য::

  © Blogger templates The Professional Template by Ourblogtemplates.com 2008

Back to TOP