22 March, 2007

সকাল বেলার খিদে

সুইডিশ শার্লট্যা গত পরশু থাইল্যান্ড এসেছিলেন বিজনেস পারপাসে। অ্যাপয়েন্টমেন্ট আজ সকাল দশটায়। আজ সকাল সাতটায় ফোন করে জানালো - স্যরি আই ক্যান নট কাম!
গলার স্বর খুব বিমর্ষ শোনালো।
- কেন? আর য়ূ্য ওকে?
- মাই ক্যাট ইস গন...
- মানে?
- 'আমার বিড়ালটি পাওয়া যাচ্ছে না'। মনে হলো শার্লট্যা কান্না করছে।
- বিড়াল! কোথায় হারিয়েছে?
- সুইডেনে, আমার বন্ধুর বাসায় রেখে এসেছিলাম। গত রাতে ফোন পেলাম - দ্য ক্যাট ইজ লস্ট! আমাকে সুইডেন যেতে হবে বিড়াল খুঁজতে...।
- মিটিংটা করে গেলে হয় না? আমার অবাক হওয়ার পালা।
- নো, ইমপসিব্যল! আই লাভ হিম মোর দ্যান মাই লাইফ।
আমি নীরব। কী বলবো বুঝতে পারছিলাম না।
- য়ূ্য নো, পৃথিবীতে বিড়ালটি ছাড়া আমার আপন আর কেউ নেই। মাই হাসব্যান্ড ডাইড, নো চাইলড...।
- সুইডেন যাচ্ছো কবে?
- আজ বিকেলের ফ্লাইটে। বিড়াল খুঁজে পেলে আবার নতুন শিডিউল জানাবো। আই অ্যাম স্যরি ফর য়ূ্যর ইনকনভেনিয়েন্স!
সামান্য একটি বিড়ালের জন্য এতো মায়া! প্লেন ফেয়ার, ফুডিং-লজিং সব বৃথা! বিড়াল খুঁজতে বিজনেস ট্রিপ ক্যানসেল করে সুইডেন যেতে হবে!
পরে ভাবলাম - কে জানে, হয়তো 51 বছর বয়েসী শর্লট্যার কাছে ঐ বিড়ালই একমাত্র আপন! আহ্, মানুষ কতোটা নি:স্ব হয়ে যায় !
-------

বাংলাদেশ হেরে গেলো শ্রী লংকার কাছে। হারার চেয়েও বড় কথা বাংলাদেশ নিজেদের খেলাটুকু খেলতে পারেনি। উৎপল শুভ্রের লেখাটা খুব ভালো লেগেছে - দিনটি বাংলাদেশের ছিল না। এখনো আশায় আছি - বাংলাদেশ সুপার এইটে খেলবে। গুড লাক বাংলাদেশ!

-------
দেশের রাজনীতিতে স্থবিরতা এসে গেছে। ঘরোয়া রাজনীতিও নিষিদ্ধ।
একজন বলছিলেন - গত দু'মাস দেশে হরতাল হয়নি, পাবলিক হিসেবে এটাই অনেক বড় স্বস্তি! তবুও মহীরুহেরা বসে নেই। ইলেকশন করে আগের ফরম্যাটে আনতে হবে সব। এ গভর্মেন্ট বেশ আনকমফোর্ট্যাবল। তাই দাবী - নির্বাচনের সময়সীমা। 'তোরা যে যা বলিস ভাই, আমরা ক্ষমতা-ই চাই...'।

-------
খবরে প্রকাশ - উল্লাপাড়ার 9 বছর বয়সী নয়ন নাথ দাশকে অপহরণের পর জোর করে ধর্মান্তরিত করার চেষ্টা করা হয়েছে। সুন্নতে খৎনার কাজটিও সম্পাদন করা হয়েছিল! অপহরণের 3দিন পর তাকে উদ্ধার করা হয়েছে। এলাকার বেলাল - শহীদ ও কতিপয় ব্যক্তিকে অভিযুক্ত করে থানায় মামলা করা হয়েছে। কিন্তু গ্রামের অনেকেই মামলা দায়েরের বিষয়টি 'সহজভাবে' দেখছে না। আসুন আমরা বেলাল-শহীদদের জন্য তালি বাজাই, বিষয়টিকে 'সহজভাবে' দেখি...।

-------

নওমি ক্যাম্পবেল, সুবেদার মেজর ফরিদ মূন্সী এবং একজন ইছানূরের একটি কেক:

গোপালগঞ্জের ইছানূর কাজ করতো ঢাকায় সুবেদার মেজর ফরিদ মূন্সীর বাসায়। সেখানে তাকে তিনবেলা খাওয়া দেয়া তো হতোই না, বরং বিভিন্ন অজুহাতে চলতো বৈদ্যুতিক শক, গরম সেঁকা বিভিন্ন শারীরিক নির্যাতন । গত বুধবার ইছানূর ফ্রিজ থেকে একটি কেক খেয়ে ফেললে বাড়ীর সবাই তার উপর চড়াও হয়। রিপোর্টে জানা গেছে - বেদম প্রহারে ইছানূর এখন জীবন-মৃত্যূর সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে।

ব্রিটিশ সুপার মডেল নওমী ক্যাম্পবেল নিউইয়র্কের বাস স্টেশন ও রেলস্টেশনের মেঝে ও টয়লেট পরিস্কারের কাজ শুরু করেছেন। জানা গেছে - তার অপরাধ - তিনি গৃহপরিচারিকাকে মোবাইল সেট ছুড়ে মেরেছিলেন। তাই এ শাস্তি। গত জানুয়ারিতে কমিউনিটি সার্ভিসের আদেশ দেন আদালত। পাশাপাশি নওমিকে 363 মার্কিন ডলার জরিমানা করা হয়। নিউইয়র্ক পয়ঃনিষ্কাশন বিভাগের মুখপাত্র আলবার্ট ডুরেল জানান, 'পাঁচদিন সাত ঘণ্টা করে নওমি ক্যাম্পবেল ধোয়ামোছার কাজ করবেন। দিনে দু'বার তিনি বিরতি পাবেন।'

আপনার দূর্ভাগ্য নওমি ক্যাম্পবেল। আপনি সুবেদার মেজর ফরিদ মূন্সীর কপাল নিয়ে জন্মাননি। বাংলাদেশ কেবল হতভাগা ইছানূরের অমোঘ নিয়তি।

0 মন্তব্য::

  © Blogger templates The Professional Template by Ourblogtemplates.com 2008

Back to TOP